বাংলা কমিকস বা কমিকসের নায়ক নারায়ণ

বাংলা কমিকস বা কমিকসের নায়ক নারায়ণ , দেবনাথ আর নেই। মঙ্গলবার সকালে তিনি মারা যান। তার বয়স হয়েছিল 96 বছর।

নারায়ণ দেবনাথের সৃষ্ট একের পর এক চরিত্র কয়েক প্রজন্ম ধরে বাঙালি কিশোরদের সঙ্গী। স্রষ্টা নারায়ণ সেই হুন্ডা, ভোদা, বাঁটুল, নান্টে,

ফন্টে, কেল্টু রেখে গেছেন।গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর কলকাতার মিন্টো পার্কের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন নারায়ণ

দেবনাথ। ১৩ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী অরূপ রায় হাসপাতালে প্রবীণ শিল্পীর সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় তার হাতে তুলে দেওয়া হয়

পদ্মশ্রী সম্মান। হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে তিনি তা গ্রহণ করেন। শনিবার রাত ৯টা ১৫ মিনিটে শিল্পীকে ভেন্টিলেশন দেওয়া হয়। আজ

সকালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।গত শতাব্দীর পঞ্চম দশক থেকে নারায়ণ দেবনাথের চিত্রকর্মের সঙ্গে বাঙালি পাঠকরা পরিচিত।

দেব সাহিত্য কুটির থেকে প্রকাশিত শিশুতোষ বই হোক বা ‘শুকতারা’র পাতা, তরুণ নারায়ণ দেবনাথের অলঙ্কারের জাদু সবাইকে মুগ্ধ

করেছে। পাঠকের আত্মীয় হয়ে ওঠেন।নন্টে ফোনে’র নারায়ণ দেবনাথ আর নেইমোঃ রাশেদুল আলম রাসেলশুকতারা সম্পাদকের

বাংলা কমিকস বা কমিকসের নায়ক নারায়ণ

অনুরোধে ষাটের দশকের গোড়ার দিকে হান্দা ভোদার জন্ম হয়। এর কিছুক্ষণ পরেই ‘বাঁটুল দ্য গ্রেট’-এর সঙ্গে পরিচিত হন শিক্ষার্থীরা। ‘নান্টে ফন্টে’, ‘বাহাদুর বেরাল’ এলো। এগুলোর মতো জনপ্রিয় না হলেও বাঙালি পাঠকরা ‘শুঁটকি আর মুটকি’, ‘পটলচাঁদ দ্য ম্যাজিশিয়ান’ এবং ‘গয়েন্দা কৌশিক রায়’ও পড়েছেন।কলকাতার দৈনিক আনন্দবাজার অনুসারে, নারায়ণ দেবনাথ কলকাতার হাওড়ার শিবপুরে ১৯২৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন। ছোটবেলা থেকেই শিল্পের প্রতি ঝোঁক ছিল। বাড়িতে অলংকার তৈরির প্রবণতা ছিল। নারায়ণ দেবনাথ ছোটবেলা থেকেই গহনার ডিজাইন করতেন। স্কুল শেষ করে আর্ট কলেজে ভর্তি হন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ডামাডোল আর্ট কলেজে পড়াশোনা বন্ধ করে দেয়। এরপর কয়েকটি বিজ্ঞাপনী সংস্থায় কাজ করেন। 2013 সালে, তিনি সাহিত্য একাডেমি পুরস্কার এবং বঙ্গবিভূষণ পুরস্কারে ভূষিত হন। 2021 সালে পদ্মশ্রী পেয়েছেন।গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর কলকাতার মিন্টো পার্কের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন

১৩ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী অরূপ

১৩ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী অরূপ রায় হাসপাতালে প্রবীণ শিল্পীর সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় তার হাতে তুলে দেওয়া হয় পদ্মশ্রী সম্মান। হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে তিনি তা গ্রহণ করেন। শনিবার রাত ৯টা ১৫ মিনিটে শিল্পীকে ভেন্টিলেশন দেওয়া হয়। আজ সকালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।গত শতাব্দীর পঞ্চম দশক থেকে নারায়ণ দেবনাথের চিত্রকর্মের সঙ্গে বাঙালি পাঠকরা পরিচিত। দেব সাহিত্য কুটির থেকে প্রকাশিত শিশুতোষ বই হোক বা ‘শুকতারা’র পাতা, তরুণ নারায়ণ দেবনাথের অলঙ্কারের জাদু সবাইকে মুগ্ধ করেছে। পাঠকের আত্মীয় হয়ে ওঠেন।শুকতারা সম্পাদকের অনুরোধে ষাটের দশকের গোড়ার দিকে হান্দা ভোদার জন্ম হয়। এর কিছুক্ষণ পরেই ‘বাঁটুল দ্য গ্রেট’-এর সঙ্গে পরিচিত হন শিক্ষার্থীরা। ‘নান্টে ফন্টে’, ‘বাহাদুর বেরাল’ এলো। এগুলোর মতো জনপ্রিয় না হলেও বাঙালি পাঠকরা ‘শুঁটকি আর মুটকি’, ‘পটলচাঁদ দ্য ম্যাজিশিয়ান’ এবং ‘গয়েন্দা কৌশিক রায়’ও পড়েছেন।কলকাতার দৈনিক আনন্দ

আরো পড়ুন 

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *